প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করলো তালেবান


তালেবান সরকার পশ্চিম আফগানিস্তানে হত্যার দায়ে এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) তালেবানের একজন মুখপাত্র ওই ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গত বছর ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম তালেবান প্রকাশ্যে কাউকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ জানান, অভিযুক্ত ব্যক্তি ২০১৭ সালে অন্য এক ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। পশ্চিমাঞ্চলীয় ফারাহ প্রদেশে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। 


তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ

আফগানিস্তানের ভারপ্রাপ্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানি, উপ-প্রধানমন্ত্রী আবদুল গনি বারাদার, প্রধান বিচারপতি, ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ভারপ্রাপ্ত শিক্ষামন্ত্রী এবং উচ্চপদস্থ তালেবান কর্মকর্তারা ওই ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার সময় উপস্থিত ছিলেন। তদন্ত শেষে পৃথক তিনটি আদালতে হত্যা মামলার বিচার হয়। 

আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করার পরে, তালেবানের সর্বোচ্চ ও আধ্যাত্মিক নেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদা তার মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন করেছেন বলে জানান জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ। তবে কিভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানাননি তিনি। 


এসব অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের প্রকাশ্যে বেত্রাঘাতের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হবে।

সম্প্রতি তালেবান নিয়ন্ত্রিত আফগানিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত (সুপ্রিম কোর্ট) ঘোষণা দেন, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে বেশ কয়েকটি প্রদেশে চুরি ও বিভিন্ন যৌন সম্পর্কিত অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। এখন থেকে এসব অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া গেলে অভিযুক্তদের প্রকাশ্যে বেত্রাঘাতের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হবে।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *