পাহাড়ধসে তিন নারীসহ একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু


কক্সবাজারের রামুতে পাহাড়ধসে তিন নারীসহ একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) রাত ৮টার দিকে কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের লট উখিয়ার ঘোনা গ্রামের ঐতিহ্যবাহী লাওয়ে জাদি পাহাড়ের পূর্ব পাশে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে। তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন রামু থানার ওসি আনোয়ারুল হোসাইন।  

নিহতরা হলেন, ওই গ্রামের নজির আহমদের ছেলে আজিজুর রহমান (৫৫) তার স্ত্রী রহিমা খাতুন (৪০) ছেলের বউ নাসিমা আক্তার (২৫) আজিজুরের শাশুড়ী দিলফরুজ বেগম (৬৫)।



কাউয়ারখোপ ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ কায়েশ জানান, আজিজুর রহমানের পরিবার এ সময় রাতের খাবার খাচ্ছিলেন। হঠাৎ পার্শবর্তী পাহাড়ধসে রান্না ঘরের উপর পড়লে ঘটনাস্থলে তারা মাটিচাপা পড়েন। পরে স্থানীয়রা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়। তাদের সঙ্গে এসে যোগ দেয় রামুর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা।



ফায়ার সার্ভিসের রামুর স্টেশন কর্মকর্তা সৌমেন বড়ুয়া বলেন, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটি চাপা থেকে ৪ জনের লাশ উদ্ধার করে। তবে বৃষ্টি না হলেও অসময়ে কেন পাহাড়ধস তা নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি। খবর পেয়ে ইউএনও, ওসি এবং স্থানীয় চেয়ারম্যান মেম্বারসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।


ছবি: ইত্তেফাক

রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা মোস্তফা বলেন, খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন ঘটনাস্থলে যায়। জাদির পাহাড় স্থলে পাহাড়ের একটা অংশ ধসে পার্শ্ববর্তী বসতির উপর পরে। সেখানে সে বাড়ির ৪ জন ব্যক্তি রাতের খাবার খেতে বসেছিলেন। তারা ৪ জনই মৃত্যুবরণ করেন। লাশগুলো উদ্ধার করে দাফন কাফনের জন্য উপজেলা ও জেলা প্রসাসনের পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা মানবিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।

তবে, অসময়ে কেন পাহাড়ধস। তার কারণ অনুসন্ধানের কাজ চলছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।





Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *